ই-পেপার মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯ ৬ কার্তিক ১৪২৬
ই-পেপার মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯

ময়মনসিংহে লাগেজে পাওয়া গেল যুবকের দ্বিখণ্ডিত লাশ
ময়মনসিংহ ব্যুরো
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ২২.১০.২০১৯ ১:২৩ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

ময়মনসিংহে লাগেজে পাওয়া গেল যুবকের দ্বিখণ্ডিত লাশ

ময়মনসিংহে লাগেজে পাওয়া গেল যুবকের দ্বিখণ্ডিত লাশ

বোমা নয়, অবশেষে ১২ ঘণ্টা পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কড়া প্রহরায় থাকা লাল ট্রলি লাগেজের ভেতরে পাওয়া গেল মাথা ও হাত-পাবিহীন যুবকের দ্বিখণ্ডিত লাশ। সোমবার সকালে ময়মনসিংহ নগরীর পাটগুদাম ব্রিজের কাছে রেখে যাওয়া লাল ট্রলি লাগেজের ভেতর থেকে পলিথিনে মোড়ানো যুবকের দ্বিখণ্ডিত লাশটি উদ্ধার করেন পুলিশ। 

স্থানীয়রা জানান, রোববার সকালে কে বা কারা লাল রঙের ট্রলি লাগেজটি ব্রহ্মপুত্র নদীর ব্রিজের কাছে রাস্তার পাশে ফেলে রাখে। প্রথমে ধারণা করা হয়েছিল, কোনো যাত্রী লাগেজটি রেখে গাড়ির অপেক্ষা করছে। কিন্তু না লাগেজটি দুপুর গড়িয়ে সন্ধ্যা হলেও কেউ নিচ্ছে না। এ নিয়ে প্রত্যক্ষদর্শীদের মাঝে কৌতূহলের সৃষ্টি হলে ট্রাফিক পুলিশকে জানানো হয়। খবর পেয়ে বোমা সন্দেহে লাগেজটির এক পাশে বালির বস্তার বেষ্টনী দিয়ে পাহাড়া বসায় র‌্যাব-পুলিশ। খবরটি চাউর হলে সর্বত্রই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। রাতভর সন্দেহ, আতঙ্ক আর গুজবের মধ্য দিয়েই অতিবাহিত হয়। 

পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন জানান, ব্রহ্মপুত্র নদের ব্রিজের কাছে রাস্তার পাশে সারা দিন লাল রঙের একটি ট্রলি লাগেজ পড়ে থাকতে দেখে সন্ধ্যায় ট্রাফিক পুলিশের এক সদস্য থানা পুলিশকে অবহিত করেন। বোমা সন্দেহে রাত আটটা থেকে লাগেজটি ঘিরে রাখে পুলিশ ও র‌্যাব। খবর দেওয়া হয় বোম ডিসপোজাল টিমকে। সোমবার সকালে ঢাকা থেকে বোম ডিসপোজাল ইউনিটের সদস্যরা এসে ৯টার দিকে লাগেজের চেইন খুলে ভেতরে থাকা পলিথিনে মোড়ানো মাথা ও হাত-পাবিহীন দ্বি-খণ্ডিত এক যুবকের লাশ উদ্ধার করে। অজ্ঞাত যুবকের বয়স হবে আনুমানিক ২৫-৩০ বছর। ধারণা করা হচ্ছে, ঠান্ডা মাথায় হত্যার পর খণ্ডিত করে লাশটি লাগেজের ভেতর রেখে ফেলে যায় দুর্বৃত্তরা। হত্যাকারীদের ধরার জন্য পুলিশ কাজ করছে। ময়নাতন্তের জন্য লাশ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ সুপার বলেন, ‘এটা অ্যাবসুলেটলি ক্রিমিনাল কেস। কাজটা যেই করেছে খুব ঠান্ডা মাথায় করেছে। মনে হয়, যথেষ্ট সর্তকতামূলকপন্থা অবলম্বন করেই কাজটা করা হয়েছে। তবে যেই করুক না কেন অপরাধের কিছু আলামত রেখে যায়। লাগেজে ফিঙ্গার প্রিন্ট থাকে। পদ্ধতিগত যেসব বিষয় আছে, তা অনুসরণ করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে রোববার রাতেই ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি এবং র‌্যাবের সিইও লে. কর্নেল ইফতেখার উদ্দিনসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।



এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ।
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]